Breaking News
Home / আইন ও আদালত / গাইবান্ধায় প্রতিপক্ষের অাঘাতে গৃহবধু গুরুতর আহত

গাইবান্ধায় প্রতিপক্ষের অাঘাতে গৃহবধু গুরুতর আহত

আল কাদরী কিবরীয়া সবুজ, গাইবান্ধা সংবাদদাতা
গাইবান্ধা জেলা সদরের কুপতলা ইউনিয়নের নাগরাজ এলাকায় পারিবারিক বিষয় নিয়ে প্রতিপক্ষের আঘাতে গুরুত্বর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন লুৎফুন্নেছা নামে এক গৃহবধু। এ ঘটনায় একই গ্রামে পার্শ্ববর্তী বাসিন্দা আবুল হোসেনের পুত্র বাবলু মিয়াকে ১ নং আসামী করে গাইবান্ধা সদর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন গুরুত্বর আহত গৃহবধুর স্বামী লুৎফর রহমান।

থানায় লিখিত এজাহার ও সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সদর উপজেলার কুপতলা ইউনিয়নের নাগরাজ এলাকার আবুল হোসেনের পুত্র বাবলু মিয়া, মৃত. আজিজুল হকের পুত্র রফিকুল ইসলাম, রফিকুল ইসলামের পুত্র আল আমিন, মৃত. তৈমুদ্দিনের পুত্র আবুল হোসেন, মৃত. কানচিয়ার পুত্র ইনতাজ আলী, বাবলু মিয়ার স্ত্রী মোছাঃ বকুল বেগম, আবুল হোসেনের স্ত্রী লাইলী বেগম, রফিকুল ইসলামের স্ত্রী আফরোজা বেগম গত ৯ ডিসেম্বর/১৮ ইং দুপুরে লাঠি ছোড়া, লোহার রড, সাবল ইত্যাদি নিয়ে স্ব-দলবলে একই গ্রামের পার্শ্ববর্তী বাসিন্দা মোঃ তালেব উদ্দিনের পুত্র লুৎফর রহমানের বসতবাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়িঘর, দরজা ভাংচুর করে। এ সময় লুৎফর রহমানের স্ত্রী লুৎফুন্নেছা বেগম বাধা দিলে ধারালো ছুরি দিয়ে তার মাথায় চোট মেরে গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম করে। লুৎফর রহমান ও তার ছেলে নুরুন্নবী মিয়াকেও আসামীরা মারধর করে এবং গলাটিপে হত্যা চেষ্টা চালায়। শুধু তাই নয়, আসামীরা ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর, নগদ ১ লক্ষ টাকা এবং ১ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়। পরে পার্শ্ববর্তী বাসার এক মহিলার সহযোগিতায় অাহত ব্যাক্তিকে হাসপাতালে পাঠায়। বর্তমানে ঐ গৃহবধু লুৎফুন্নেছা বেগম গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় লুৎফর রহমান বাদী হয়ে গাইবান্ধা সদর থানায় একটি এজাহার করেছেন। তিনি বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আসামীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ চেয়েছেন।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …