Breaking News
Home / সারাদেশ / রংপুর / গাইবান্ধা / একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধার ৫টি আসনে যারা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করলেন ও বহাল থাকলো

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধার ৫টি আসনে যারা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করলেন ও বহাল থাকলো

আল কাদরী কিবরীয়া সবুজ, গাইবান্ধা সংবাদদাতা
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধার ৫টি আসনে যারা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন তারা হচ্ছেন- গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের মহসীন আলী, গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ি) আসনে কৃষক শ্রমিক জনতা মোস্তফা মনিরুজ্জামান, গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) আসনে গণফোরামের আব্দুর রউফ আকন্দ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রহিম সরকার এবং গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনে বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টির প্রার্থী আমিনুল ইসলাম গোলাপ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধার ৫টি আসনে যে সকল প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বহাল থাকলো তারা হলেন-
গাইবান্ধা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক সেবাষ্টিন রেমা সাংবাদিকদের জানান,আজ রবিবার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের দিন ৪টি আসন থেকে ৫ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। ফলে বর্তমানে জেলার ৫ টি আসনে ৪৪ জনের মনোনয়নপত্র বহাল থাকলো। এদিকে বিএনপি জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাহামুদুন্নবী টিটুল সাংবাদিকদের জানান, প্রত্যেক আসনে বিএনপির একজন করে প্রার্থী থাকলো। তারাই দলীয় প্রতীক ধানের শীষ পাবেন। অন্য প্রার্থীরা নাম প্রত্যাহার করে না নিলেও কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে দলীয়ভাবে তাদের নাম বাতিল বলে গন্য হবে। যারা দলীয়ভাবে ধানের শীষ প্রতীক পেলেন যারা। তারা হলেন- গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে মাজেদুর রহমান। গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে টিআইএম ফজলে রাব্বি চৌধুরী। গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) আসনে ফারুক কবীর আহম্মেদ ও গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনে ফারুক আলম সরকার।

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধার রির্টানিং অফিসারের দেয়া তথ্য অনুযায়ী বহাল ৪৪ জন প্রার্থীদের নাম নিম্নে প্রদত্ত হলো-
গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে ৯ জনের মনোনয়নপত্র বহাল থাকলো তারা হলেন- মহাজোটভুক্ত জাতীয় পার্টির (এ) দলীয় প্রার্থী বর্তমান এমপি ব্যরিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী জেলা জামায়াতের সহ-সেক্রেটারী মাজেদুর রহমান, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের গোলাম আহসান হাবীব মাসুদ, ইসলামী আন্দোলনের আশরাফুল ইসলাম খন্দকার, গণতন্ত্রী পার্টি’র আবুল বাসার মো: শরীতুল্যাহ্, বাম গণতান্ত্রিক জোট প্রার্থী বাসদ (খালেকুজ্জামান) নেতা গোলাম রব্বানী, গণফ্রন্ট এর শরিফুল ইসলাম, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের হাফিজুর রহমান সর্দার ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জাতীয় পার্টির সাবেক এমপি কর্ণেল (অবঃ) ডাঃ আব্দুল কাদের খাঁন।

গাইবান্ধা-২ (সদর) আসনে ৮ জনের মনোনয়নপত্র বহাল থাকলো তারা হলেন- মহাজোটভুক্ত আ’লীগ দলীয় প্রার্থী হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি, ঐক্যফন্টভুক্ত বিএনপি দলীয় প্রার্থী গাইবান্ধা জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি খন্দকার আহাদ আহমেদ, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহামুন্নবী টিটুল ও সম্প্রতি জাতীয় পার্টি থেকে বিএনপিতে যোগ দেয়া সাবেক এমপি আব্দুর রশীদ সরকার, বাম গণতান্ত্রিক জোট প্রার্থী সিপিবি নেতা মিহির ঘোষ, ইসলামী আন্দোলনের আল-মামুন, ইসলামী ঐক্যজোটের মওলানা জুবায়ের আহমেদ ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির জিয়া জামান খান।

গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে ৯ জনের মনোনয়নপত্র বহাল থাকলো তারা হলেন- মহাজোটভুক্ত সাদুল্যাপুর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বর্তমান এমপি ডাঃ ইউনুস আলী সরকার, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিষ্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদি, ঐক্যফ্রন্টভুক্ত গাইবান্ধা জেলা বিএনপির সভাপতি ডাঃ মইনুল হাসান সাদিক, জাতীয় পার্টি (জাফর) এর কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ডাঃ টিআইএম ফজলে রাব্বি চৌধুরী ও বিএনপি নেতা সাবেক এমপি রওশনারা ফরিদ, ইসলামী আন্দোলনের মোঃ হানিফ দেওয়ান, বাম গণতান্ত্রিক জোট প্রার্থী বাসদ (খালেকুজ্জামান) নেতা সাদেকুল ইসলাম, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মিজানুর রহমান তিতু।

গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) আসনে ১১ জনের মনোনয়নপত্র বহাল থাকলো তারা হলেন- মহাজোটভুক্ত সাবেক সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের প্রকৌশলী মনোয়ার হোসেন চৌধুরী, জাতীয় পার্টির কাজী মশিউর রহমান ও জাকের পার্টির আবুল কালাম, ঐক্যফন্টভুক্ত বিএনপি’র বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক কবির আহমেদ, সাবেক এমপি শামীম কায়সার লিংকন, বিএনপি নেতা ওবায়দুল হক সরকার ও বিএনপি নেতা অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম, ইসলামী আন্দোলনের সৈয়দ তৌহিদুল ইসলাম, বাম গণতান্ত্রিক জোট প্রার্থী বাংলাদেশ বিপবী ওয়ার্কাস পার্টির নেতা ছামিউল আলম, এনডিপি’র খন্দকার মোঃ রাশেদ, মুসলিম লীগের মোঃ সানোয়ার হোসেন।

গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে ৭ জনের মনোনয়নপত্র বহাল থাকলো তারা হলেন- মহাজোটভুক্ত আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি, জাতীয় পার্টি (এ) দলীয় প্রার্থী সাবেক সাঘাটা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এএইচএম গোলাম শহীদ রঞ্জু, ঐক্যফন্টভুক্ত প্রার্থী কৃষক লীগ থেকে সদ্য বিএনপিতে যোগদানকারী ফারুক আলম সরকার, সাঘাটা উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আলহাজ¦ মোহাম্মদ আলী ও বিএনপি নেতা শাহ মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের আব্দুর রাজ্জাক মন্ডল ও বাম গণতান্ত্রিক জোট প্রার্থী বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টির যজ্ঞেস্বর বর্মন।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …