Breaking News
Home / সারাদেশ / রংপুর / গাইবান্ধা / একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুন্দরগঞ্জ-১ আসনে এমপি লিটন হত্যা মামলার প্রধান আসামীসহ ১৪ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুন্দরগঞ্জ-১ আসনে এমপি লিটন হত্যা মামলার প্রধান আসামীসহ ১৪ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ

আল কাদরী কিবরীয়া সবুজ, গাইবান্ধা সংবাদদাতা
গত ২০১৬ সালের শেষ দিন তথা ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সর্বানন্দ ইউনিয়নের মাস্টারপাড়া গ্রামে নিজ বাড়িতে আততায়ীদের ছোঁড়া গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে রমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিহত হন সরকার দলীয় এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। বহুল আলোচিত এ হত্যা মামলার প্রধান আসামী হিসেবে সাবেক এমপি আব্দুল কাদের খাঁন ২০১৭ সালের ২২ ডিসেম্বর বগুড়ার গরীবশাহ্ ক্লিনিক কাম বাসভবন থেকে গ্রেফতার হন। তখন থেকেই গাইবান্ধা জেলা কারাগারে রয়েছেন। এমপি লিটন হত্যা মামলার প্রধান আসামী ছাড়াও আব্দুল কাদের খাঁন একটি অস্ত্র আইনের মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী।
এর মধ্যে এ আসনে দুই দুইবার উপ-নিবার্চন হয় । দশম সংসদের প্রথম উপ-নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা আহম্মেদ বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন। তিনি নির্বাচিত হওয়ার কিছুদিন পর ঢাকা যাওয়ার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত মারা যান। এরপর আবারো দ্বিতীয়বার উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় । এ নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হয় জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী তিনি এবার একাদশ নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করার সম্ভবণা রয়েছে। সারাদেশের ন্যায় আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বহুল আলোচিত ও সমালোচিত গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হিসেবে এমপি লিটন হত্যা মামলায় চার্জশীট ভুক্ত প্রধান আসামী ও মহাজোট সরকারের সাবেক এমপি কর্ণেল (অবঃ) ডাঃ আব্দুল কাদের খাঁন সহ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন ১৪ জন প্রার্থী। এ নির্বাচনে নির্বাচন অফিস হতে প্রার্থীগণ মনোনয়পত্র উত্তোলন করে প্রতিদ্বন্দতিা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক তফশীল ঘোষণার পর থেকে আজ সোমবার পর্যন্ত জেলা ও উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে তাঁরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। এর আগে গত ২২ নভেম্বর বিকালে উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন সরকার দলীয় এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলায় চার্জশীট ভুক্ত প্রধান আসামী ও মহাজোট সরকারের সাবেক এমপি আব্দুল কাদের খাঁনের প্রতিনিধি হিসেবে তার প্রতিবেশী গওছল আযম সরকার। এ নির্বাচনে পারস্পারিক প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য যারা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। তাঁরা হলেন, বর্তমান সাংসদ ও উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, উপজেলা আ’লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আফরুজা বারী, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি খন্দকার জিয়াউল ইসলাম, উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি মোজহারুল ইসলাম, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতা আশরাফুল ইসলাম খন্দকার, গণতন্ত্র পার্টি নেতা আবুল বাশার শরিয়তুল্লাহ, জাসদ (ইনু) উপজেলার আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মোহাম্মদ আলী প্রামাণিক, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)’র উপজেলা নেতা আব্দুর রাজ্জাক সরকার, অবসরপ্রাপ্ত এলজিইডি’র প্রকল্প পরিচালক বীর-মুক্তিযোদ্ধা শহিদুর রহমান প্রামাণিক, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আহসান হাবীব মাসুদ, জয়নাল আবেদীন সাদা, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা মাজেদুর রহমান এবং লিটন হত্যা মামলার আসামী কনেল (অবঃ) ডাঃ আব্দুল কাদের খাঁঁন সহ ১৪ জন।

এরমধ্যে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা মাজেদুর রহমান আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন বলে ইতোমধ্যে তার পক্ষে জেলা নির্বাচন অফিস থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন একজন প্রতিনিধি। মাজেদুর রহমান ছাত্রলীগ নেতা খলিলুর রহমান মামুন, ৪ পুলিশ হত্যাসহ বিভিন্ন নাশকতা মামলার আসামী রয়েছেন। তিনি ৪ দলীয় ঐক্য জোট তথা জামায়াতের সাবেক এমপি আব্দুল আজিজের উত্তরসূরী হিসেবে দলের সাংঠনিক সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে আসন্ন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন বলে একাধিক সূত্র জানায়। জামায়াতের সাবেক এমপি আব্দুল আজিজ বিজ্ঞ মানবতা বিরোধী অপরাধ ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক মৃত্যু দন্ডাদেশপ্রাপ্ত হওয়ায় বর্তমানে আত্মগোপনে রয়েছেন।
এদিকে, বিগত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কনেল (অবঃ) ডাঃ আব্দুল কাদের খাঁঁন ৪ দলীয় ঐক্য জোট (জামায়াত)’র মনোনীত প্রার্থী আব্দুল আজিজকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন। আব্দুল আজিজ এর আগের নির্বাচনে সাংসদ নির্বাচিত হন।

এ ব্যাপারে গাওছুল আযম সরকার বলেন, আমাদের জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতা করবো।

নির্বাচনে আব্দুল কাদের খানের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দতিা করার বিষয়ে বিজ্ঞ আইনজীবীগণ বলেন, ‘ সাবেক এমপি আব্দুল কাদের খাঁন সরকার দলের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলাটিসহ একটি অস্ত্র মামলার চার্জশীটভুক্ত প্রধান আসামী। মামলা দু’টির এখন সাক্ষ্য গ্রহণ কার্যক্রম চলছে। যেহেতু মামলা দু’টির এখনও রায় হয়নি। তাই নির্বাচন করতে কাদের খাঁনের কোনও আইনী জটিলতা নেই। আদালতের অনুমতি সাপেক্ষে কারাগারে থেকেই নির্বাচন করতে হবে তাকে। এক্ষেত্রে তার জামিনের কোনও সুযোগ নেই।’ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করতে হলে আব্দুল কাদের খাঁন কে আদালত হতে অনুমতি নিতে হবে।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …