Breaking News
Home / সারাদেশ / রংপুর / গাইবান্ধা / হিন্দু ধর্মালম্বীদের সূর্য দেবতা কে সন্তুষ্ট করতে গাইবান্ধার ঘাঘট নদীর তীরে সূর্য পূজা অনুষ্ঠিত

হিন্দু ধর্মালম্বীদের সূর্য দেবতা কে সন্তুষ্ট করতে গাইবান্ধার ঘাঘট নদীর তীরে সূর্য পূজা অনুষ্ঠিত

আল কাদরী কিবরীয়া সবুজ, গাইবান্ধা সংবাদদাতা
হিন্দুধর্মাবলম্বীরা ডালা-কুলা সাজিয়ে সূর্য দেবতার পূজা করেন। প্রতিবছর কালী পূজার পর শুক্ল পক্ষের ষষ্টি তিথিতে সূর্য দেবতাকে সন্তুষ্ট করতে গাইবান্ধা জেলার ঘাঘট নদীর তীরে এ আয়োজন করা হয়।
আজ ১৩ নভেম্বর ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য আর উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে গাইবান্ধা জেলা শহরের নতুন ঘাঘট ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় পালিত হয়েছে সূর্য পূজা। মনোবাসনা পূর্ণ, আপদ-বিপদ দূরীকরণ, বিভিন্ন মানত পূরণে হিন্দু ধর্মালম্বী হরিজন, রবিদাস ও রজক সম্প্রদায়সহ বিভিন্ন সম্প্রদায়ের হাজার হাজার পূণ্যার্থর সমাগম ঘটে এই সূর্য পূজায়।
এদিন বিকেলে পূজারীরা উপবাস থেকে ফুল, প্রসাদ, বাদ্য-বাজনাসহ বিভিন্ন পূজার সামগ্রী নিয়ে গাইবান্ধার ঘাঘট নদীর তীরে উপস্থিত হয়ে সূর্য অস্তের পূর্ব মুহুর্তে ভক্ত ও পূণ্যার্থীরা নদীর পানিতে দাঁড়িয়ে ডালা-কুলায় সাজানো প্রসাদ নিয়ে পূজা করেন। সূর্য অস্তের পর সকলেই বাড়িতে ফিরে যান। বুধবার ভোরে সূর্য স্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হবে সূর্য পূজা।
প্রতিবছর কালী পূজার পর শুক্ল পক্ষের ষষ্টি তিথিতে গাইবান্ধার ঘাঘট নদীতে বাঙালী হিন্দু সম্প্রদায়ের ভক্ত ও পূণ্যার্থীরা সূর্য দেবতাকে সন্তুষ্ট করতে এই পূজা উদযাপন করে।

ঘাটে সূর্য পূজা করতে আসা এক পূজারী সাংবাদিকদের বলেন, আমরা সূর্য দেবতাকে সন্তুষ্ট করতেই এই পূজা করে থাকি। এই পূজাকে ছট পূজাও বলা হয়। ছট পূজার মাধ্যমে সূর্য দেবতা সন্তুষ্ট হয় আর আমাদের মনোবাসনা, মানত পূরণ করে দেয়। এই আশায় আমরা প্রতিবছর এই ছট পূজা করতে আশি এই ঘাঘট নদীর তীরে। এছাড়াও দেশ ও জাতিসহ সকলের শান্তি কামনায় এই পূজা করা হয়।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …