Breaking News
Home / সারাদেশ / বরিশাল / পটুয়াখালী / গলাচিপা পৌর রাস্তায় রাতে রাজত্ব করে গরু-ছাগল

গলাচিপা পৌর রাস্তায় রাতে রাজত্ব করে গরু-ছাগল

নিয়ামুর রশিদ শিহাব, গলাচিপা (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা :
গলাচিপা পৌরসভার বেশীরভাগ রাস্তা গুলোতে সূর্যাস্তের সাথে সাথে গরু-ছাগলের দখলে চলে যায়। এতে ব্যাপক ভোগান্তিতে পরে পৌরবাসি। রাতের আধারে যানবাহন চলাচলে সৃষ্টি হয় নানা সমস্যা। যানবাহন থেকে নেমে এসব গরু রাস্তার বাহিরে সরিয়ে দিয়ে তার পরে যেতে হয় যাত্রীদের। এতে তাদের গন্তব্যে পৌছাতে অনেক সময় লাগে। এসব গরু- ছাগল শুধু রাস্তাই নয় পৌর এলাকার স্কুল,কলেজ, মারদ্রাসা এবং সরকারি বেসরকারি অফিস গুলোতে নানা সমস্যসা সৃষ্টি করে। প্রতিষ্ঠানগুলোর শোভা বর্ধন কৃত গাছপালা নষ্ট করে এবং বারান্দায় মল-মুত্র ত্যাগ করে ।
এ ব্যাপারে গলাচিপা সরকারি কলেজের অধ্যাক্ষ মুঃ ফোরকান কবির বলেন, এলাকার কিছু গরু-ছাগল কলেজের দু’শতাধিক ফলজ, বনজ ও ঔষধি গাছের চারা খেয়ে ফেলেছে । প্রতি বছরই গাছপালা লাগানো হয় কিন্তু গুরু-ছাগল তা নষ্ট করে ফেলে । এছাড়া কলেজে নোংরাও করে থাকে।
গলাচিপা ইউএনও অফিসের অফিস সুপার মোঃ শহিদুল ইসলাম বলেন, রোজ সকালে গরু ছাগলের ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করাতে হয়।
গলাচিপা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হালিম বলেন, এসব গরু ছাগল রাস্তা দখলের কারণে সকাল বেলা ফজরের নামাজ পড়তে যেতে এলাকা বাসীর কষ্ট হয় । এছাড়া এ সব গরু-ছাগলের মল মুত্রের কারনে পরিবেশ ণষ্ট হয়। গলাচিপা বেজবেল্ট একাডেমীর উপা-অধ্যাক্ষ মুঃ রুবায়েত হাসান রাসেল বলেন স্কুলের সামনে গরু-ছাগলের মল মুত্র থাকার কারনে অনেক সময়ে কোমল মতি শিশুরা দুর্ঘটনার শিকার হয়। এব্যাপারে পৌর মেয়র আহসানুল হক তুহিন বলেন, এব্যাপারে আমি নিজেও একজন ভুক্তভোগী । তিনি আরো বলেন, পৌর সভায় একটি খোয়ার রয়েছেন কিন্তু এ সব গরু ছাগলের মালিক প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের ভয়ে গরু-ছাগল কেউ খোয়ারে দেয় না। এব্যাপারে আমি অনেক বার মাইকিং করিয়েছি ।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …