Breaking News
Home / আইন ও আদালত / আবারো বিতর্কিত লুৎফর রহমানের দূর্নীতির কারনে কৃষকগোষ্ঠীর মানববন্ধন ও প্রতিবাদ !!

আবারো বিতর্কিত লুৎফর রহমানের দূর্নীতির কারনে কৃষকগোষ্ঠীর মানববন্ধন ও প্রতিবাদ !!

মু. জিল্লুর রহমান জুয়েল, গলাচিপা (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা
” বাচঁবে কৃষক হাসবে দেশ, ক্ষুদা মুক্ত স্বনির্ভর বাংলাদেশ ” বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব হওয়া সত্বেও দেশের কিছু অসাধুপায়ী কৃষি অফিসার ও কর্মচারীদের অনিয়মের কারণে, কৃষক আজ হুমকির পথে। তার’ই ধারাবহিক অনিয়মের কারনে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার উত্তর চরবিশ্বাসের ২নং ওয়ার্ডের কৃষক আজ পানি বন্ধী।

এর’ই ফলে রোজ বুধবার ২৯ আগষ্ট ২০১৮ইং সকাল ১০ টার সময় দূর্নূীতিবাজ লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে এলাকার প্রায় দুই শতাধিক কৃষকশ্রেণী মাননববন্ধন করেন।

সরজমিনে জানা যায়, বাংলাদেশ কৃষিসম্প্রসারন অধিদপ্তরের অধিনে (এ.ফ.এ) ফুড এন্ড এগ্রিকালচার এর জাতীসংঘের ৪ লক্ষ ৪০ হাজার টাকার অর্থায়নে, দুইশত মিটার পাকা সেচ নালা তৈরী করার কথা থাকলেও, উপসহকারী কৃষি অফিসার লুৎফর রহমানের তার নিজ বাড়ি হওয়ায়, ক্ষমতাবল দেখীয়ে নির্দিষ্ট স্থানে পাকা সেচ ব্যবস্থা না করে তার নিজ বাড়ির পাকা টয়লেট, রান্নাঘর সহ টিউবওয়েল নির্মান করে হাতি নেয় জাতিসংঘের অর্থ ও প্রজেক্টের মালামাল।

এখানেই শেষ নয় সরজমিনে দেখা যায়, নির্দিষ্ট স্থানে পাকা সেচ ব্যবস্থা না করে লুৎফর রহমানের বাড়ির মধ্যে লোক দেখানো নাম করে, জাতিসংঘ এর প্রজেক্ট সম্পূর্ণ দেখিয়ে, পাকা সেচ ব্যবস্থা নামে নিজ বাড়ির মধ্যে, যতসামন্য পাকা নালা তৈরী করলেও, তা আজ বিলিনের পথে। যা প্রান্তিক কৃষকগোষ্ঠীর কোন কাজে না লাগলেও, লুৎফর রহমানের বাড়ির টয়লেট, রান্নাঘর ও টিউবওয়েল কাজে লাগিয়েছেন।

এসব বিষয়ে এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণ ও কৃষকশ্রেণী আজ সীমাহীন দূর্ভোগে থাকার কারনে প্রায় এক হাজার কৃষকের আবাদি জমি, আজ অনাবাদী জমিতে পরিনিতো হয়েছে।

জনসাধারণ ও উত্তর চরবিশ্বাসের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ছালাম মোল্লা এবং স্থানীয় কৃষক ক্লালাবে র সভাপতি মোঃ মুছা খান, সদস্য বশার মীর, ফারুক মীর, ছিদ্দিক হাওলাদার, আবুবকর মোল্লা সহ আরো অনেকেই জানায়, লুৎফর রহমানের দূর্নীতির হাত এতোই লম্বা যে, লুৎফর রহমান বর্তমানে মির্জাগঞ্জ উপজেলার উপসহকারী কৃষি অফিসার হয়েও, ছুটিতে বাড়িতে এসে দূর্নীতির আখরা গড়ে তুলে কৃষকশ্রেণীকে জিম্মি করে রাখছেন উপসহকারী কৃষি অফিসার লুৎফর রহমান।

এখানেই শেষ নয়, লুৎফর রহমান নিজেকে এলাকায় কৃষি অফিসার পরিচয় দিয়ে নিজের ইচ্ছা মতো কৃষি ক্ষাতে নানা অনিয়ম ও দূর্নীতি করে আসছে দীর্ঘ বছর যাবত।

এ নিয়ে পূর্বেও বিভিন্ন স্বনামধন্য পত্র পত্রিকায়ও একাধিক সংবাদ প্রকাশ হয়েছিলো। যা ফলে কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন তদন্ত করলে, ততকালিন (এস.এ.পি.পি ও) দূর্নীতিবাজ লুৎফর রহমানকে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার সুবাধে প্রোমোশনের বদলে তাকে ডিমশোন দিয়ে ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলায় বদলী করা হয়। এসকল নানান অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে জানতে পসহকারী কৃষি অফিসার লুৎফর রহমানের বাড়িতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি।

এবিষয়ে চরকাজল ও চরবিশ্বাস ইউনিয়নের উপসহকারী কৃষি অফিসার মোঃ সাঈদুর রহমানে সাথে মুঠোফোনে জানতে চাইলে, জলাবদ্ধতার কারনে কৃষকগোষ্ঠী যে হুমকির পথে এ বিষয়ে তার জানা আছে। তবে, লুৎফর রহমানের অনিয়ম ও দূর্নীতির বিষয়ে তারা জানা নেই বলে প্রতিবেদককে জানান।

অন্যদিকে চরবিশ্বাস ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন বাবুল এর কাছে পানি বন্ধী কৃষক ও লুৎফর রহমানের অনিয়মের কথা জানতে চাইলে, বিষয়টি আমি জেনেছি, তবে যেহেতু অনেক আগের ঘটনা তবুও আমি কৃষকদের পাশে থেকে এ অনিয়ম বিরুদ্ধে রুখে দারাবো বলে প্রতিবেদককে জানান।

দূর্নীতিবাজ উপসহকারী কৃষি অফিসার লুৎফর রহমানের শাস্তির দাবী জানিয়ে অতিদ্রুত পানি বন্ধি কৃষকের জমি মুক্ত হবে এটাই প্রান্তিক কৃষকের দাবী। লুৎফর রহমানের দূর্নীতির ধারাবাহিক প্রতিবেদন পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …