Breaking News
Home / সারাদেশ / বরিশাল / পটুয়াখালী / গলাচিপায় ব্যস্ত সময় পার করছেন কামারীরা

গলাচিপায় ব্যস্ত সময় পার করছেন কামারীরা

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা ঃ
আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে পটুয়খালীর গলাচিপা উপজেলার বিভিন্ন স্হানের কামারীরা এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন। কামারীদের লোহার হাতুরীর টুং টাং শব্দে মুখরিত হয়ে উঠেছে পুরো কম’কার পট্টি। কম’কার পট্টিতে ক্রেতাদের কোরবানীর পশু জবাইয়ের প্রয়োজনীয় মালামাল নিয়ে কার আগে কে বাড়ী ফিরবে তা নিয়ে প্রতিযোগিতা এখন চোখে পড়ার মত। সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন স্হানের কম’কার পট্টিতে ঘুরে দেখা গেছে, কামারীরা এতটাই ব্যস্ত সময় পার করছেন যে, তারা সময় মত ক্রেতাদের মালামাল ডেলিভারী দিতে পারছেন না। তাই উৎসুক ক্রেতারা তাদের মালামাল নিয়ে বাড়ী ফেরার জন্য কামারীদের দোকানে প্রতিক্ষা করছেন। এ ব্যপারে ক্রেতা মো, সালাম হাওলাদার বলেন, আমি এক সপ্তাহ আগে দুইটা দা, একটি ছুরি ও একটি ছেনা পাইন দিতে দিয়েছিলাম, আজকে আমি মালামাল নিয়ে বাড়ী ফিরছি। এ বিষয়ে পৌরসভার কম’কার পট্টির মাখন কম’কার বলেন, আসলেই কাজের বেশি চাপের কারণে আমরা সময় মত ক্রেতাদের মালামাল ডেলিভারী দিতে পারছি না। তিনি আরও জানান, প্রতিটি ছুরি, দা, ছেনা পাইন বাবদ ক্রেতাদের কাছ থেকে আমরা ৫০ টাকা করে রাখি। আর প্রতিটি ছুরি ১০০ থেকে ২৫০ টাকা, প্রতিটি দা ৩৫০ থেকে ৫০০ টাকা, প্রতিটি ছেনা ৪০০ থেকে ৭০০ টাকা ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করি। কোরবানীর মৌসুমে প্রতিদিন গড়ে মজুরী ও বিক্রী বাবদ আমার ৭-৮ হাজার টাকা বিক্রয় হয়। এতে আামার গড়ে প্রতিদিন ২ হাজার থেকে ২ হাজার ৫ শত টাকা আয় হয়।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …