Breaking News
Home / সারাদেশ / খুলনা / সাতক্ষীরা / কপোতাক্ষ ও শালতা পরিদর্শনে পাউবোর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী

কপোতাক্ষ ও শালতা পরিদর্শনে পাউবোর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী

এসএম হাসান আলী বাচ্চু,তালা (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা
তালার ইসলামকাটী গ্রামে সরকারি রাস্তার জমতিে পাঁকা ঘর করার অভযিোগ উঠছে। জনগুরুত্বর্পূন রাস্তার জমতিে ঘর নর্মিানে গ্রামরে সাধারন মানুষ বাঁধা দলিওে তা উপক্ষো করা হয়ছে। অভযিোগ উঠছে স্থানীয় ভূমি সহকারী র্কমর্কতার (তহশীলদার) এর সাথে যোগসাজস করে জবরদখলকারীরা জোর র্পূবক রাস্তার উপর ঘর নর্মিান করায় জনমনে ক্ষোভ ছড়য়িে পড়ছে।

নাম প্রকাশে অনচ্ছিুক একাধকি ব্যক্তি জানান, তালা উপজলোর ইসলামকাটী সায়মেতলা মোড় হতে ভাগবাহ অভমিূখরে ফকরিপাড়ার ৩ রাস্তার মোড় সংলগ্নে ইটরে পাকা পাচলি ও ঘর নর্মিান করছে হাদি ফকরি। সে ওই পাড়ার মৃত গহর আলী ফকরি এর ছলে।ে
হাদি ফকরি ও তার ছলেে আরজিুল ইসলাম ফকরি সরকারি পচিরে রাস্তার জমি দখল করে নয়িে সখোনে পাঁকা পাচলি ও ঘর নর্মিান শুরু করলে এলাকার মানুষ তাতে বাঁধা দয়ে। কন্তিু সইে বাঁধা উপক্ষো করে আরজিুল ফকরি ও তার পতিা হাদি ফকরি কাজ শুরু কর। এক র্পযায়ে এলাকাবাসী বষিয়টি উপজলো সহকারী কমশিনার (ভূমি)কে অবহতি করনে। এমনকি স্থানীয় তহশীলদারকওে বষিয়টি অবহতি করা হয়, কন্তিু তাতে কোনও কাজ হয়ন। গত ৪/৫দনি ধরে সরকারি রাস্তার জমরি উপর বরিামহীন ভাবে চলছে নর্মিান কাজ।

এলাকাবাসীর অভযিোগ, হাদি ফকরি ও তার ছলেে আরজিুল ফকরি যখোনে পাচলি ও ঘর নর্মিান করছে সখোনে ৩রাস্তার মোড় এবং বড় বাক নয়িে গ্রামরে মধ্যে দয়িে চলে যাওয়া সায়মেতলা থকেে ভাগবাহ অভমিূখরে রাস্তাটি তালা-পাটকলেঘাটা সড়করে সাথে সংযুক্ত। এই রাস্তা দয়িে প্রতনিয়িত মাইক্রো, প্রাইভটে, ইঞ্জনি ভ্যান, ইজি বাইক ও মটরসাইকলে সহ নানান ছোট ও মাঝারি যানবাহন নয়িে শত শত মানুষ যাতায়াত কর।ে কন্তিু সরকারি জনগুরুত্বর্পূন পচিরে রাস্তার জমি দখল করে উচু পাচলি ও ঘর নর্মিান করায় একদকিে সরকারি জমি বদেখল হয়ে যাবে এবং পাচলিরে কারনে রাস্তার ৩ পাশ দখো না যাওয়ায় প্রতনিয়িত র্দূঘটনা ঘটব। যে কারনে অবলিম্বে পাচলি ও ঘর নর্মিান বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহনরে জন্য এলাকার মানুষ র্উদ্ধতন র্কতৃপক্ষরে হস্তক্ষপে কামনা করছেনে।
এব্যপারে রাস্তার জমি জোরদখলকারী হাদি ফকরি বলনে, এটি আমাদরে জম, তাই আমরা পাচলি ও ঘর করছ। এবষিয়ে তালা উপজলো সহকারী কমশিনার (ভূমি) অনমিষে বশ্বিাস বলনে, ঘটনা শুনছে, এবষিয়ে ব্যবস্থা নয়ো হচ্ছ।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের খুলনা অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী অখিল কুমার বিশ্বাস সরেজমিনে খলিলনগর ইউনিয়নের হাজরাকাটি-কাটবুনিয়া পশ্চিম শালতা নদীর বর্তমান অবস্থা ও কপোতাক্ষের ভাংগন এলাকা ঘুরে দেখেন। এছাড়া তিনি প্রসাদপুর গ্রামের জলমগ্ন এলাকা পরিদর্শন করেন এবং এলাকাবাসীর সাথে কথা বলেন। কেন্দ্রীয় পানি কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ এবিএম শফিকুল ইসলাম, তালা উপজেলা পানি কমিটির সভাপতি এম ময়নুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মীর জিল্লুর রহমান, শালতা বাঁচাও কমিটি নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সরদার ইমান আলী, স্থানীয় ইউপি সদস্য আ স ম আব্দুর রব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এরআগে সকালে পানি উন্নয়ন বোর্ডের খুলনা অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী অখিল কুমার বিশ্বাসের সাথে তার অফিস কার্যালয়ে শালতা নদী খনন, কপোতাক্ষ নদ খননের ২য় পর্যায়, টিআরএম-এর নিম্নাংশের ভাংগন ইত্যাদি বিষয়ে মতবিনিময় করেন পানি কমিটি নেতৃবৃন্দ।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …