Breaking News
Home / আইন ও আদালত / হুমকির মূখে সহকারী শিক্ষিকার দাম্পত্য তালার শিক্ষক ফারুক হোসেন’র অনৈতিক কর্মকান্ডে অভিভাবকরা ক্ষুব্ধ

হুমকির মূখে সহকারী শিক্ষিকার দাম্পত্য তালার শিক্ষক ফারুক হোসেন’র অনৈতিক কর্মকান্ডে অভিভাবকরা ক্ষুব্ধ

এসএম হাসান আলী বাচ্চু,তালা (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা
তালার লাউতাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. ফারুক হোসেন’র বিরুদ্ধে অনৈতিক কর্মকান্ডে জড়ানো, বিদ্যালয়ে সরকারি বরাদ্দকৃত টাকা আত্মসাৎ, ছাত্রীদের গায়ে অযাচিত ভাবে হাত দেওয়া, বিদ্যালয়ে নিয়োমিত উপস্থিত না হওয়া সহ একাধিক অভিযোগ উঠেছে। দীর্ঘদিন ধরে ফারুক হোসেন একের পর এক অপকর্ম করে যাওয়ায় অভিভাবক সহ স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। বিশেষতঃ বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকার সাথে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে তোলায় শিক্ষক ফারুক হোসেন’র বিরুদ্ধে আশু ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জোরালো হয়ে উঠেছে।
সূত্রে জানাগেছে, সহকারী শিক্ষক মো. ফারুক হোসেন উপজেলার লাউতাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘ বছর দায়িত্ব পালনকালে ২০১৫, ২০১৬ এবং ২০১৭ সালে সরকারের বরাদ্দকৃত স্লিপ অনুদানের ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা, রুটিন মেইনটেনেন্স এর ১০ হাজার টাকা, বিদ্যালয়ের একটি পুকুর অবৈধভাবে ইজারা দিয়ে টাকা আত্মসাৎ, প্রাক প্রাথমিক শ্রেণির সজ্জিতকরনের ১৫ হাজার টাকা এবং স্কুল কনটিজেন্সির বরাদ্দ ১৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। অভিযোগ রয়েছেÑ আত্মসাৎকৃত বিপুল এই সরকারি টাকা এক সহকারী শিক্ষিকাকে স্বর্ণালংকার সহ নানান উপহার দেওয়ার জন্য তিনি খরচ করেছেন। প্রসঙ্গত, একজন সহকারী শিক্ষিকার সাথে ফারুক হোসেন দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়া করে আসছে। যা’ শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে অভিভাবকরাও অবগত। এসব বিষয় ব্যপক জানাজানি হওয়ায় ওই সহকারী শিক্ষিকার দাম্পত্য এখন হুমকির মুখে।
এদিকে, সহকারী শিক্ষক মো. ফারুক হোসেন’র বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ে নিয়োমিত না আসা, বিদ্যালয়ে এসে সহকারী শিক্ষিকার সাথে পরকীয়া করা, বিদ্যালয় ফাঁকি দিয়ে বিভিন্ন অযুহাত নিয়ে তালা উপজেলা সদরে এসে একটি বিতর্কীত রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীদের সাথে সঙ্গ দেয়া সহ নিজ বিদ্যালয়ের উঠতি বয়সের ছাত্রীদের গায়ে অযাচিত হাত দেয় বলে গুরুতর অভিযোগ রয়েছে। এসব ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত পূর্বক আশু ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এবিষয়ে জানতে চাইলে সংশ্লিষ্ট ৮৪ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্রীকান্ত কুমার সরদার জানান, আমি গত ১৯/০৬/১৮ তারিখে অত্র বিদ্যালয়ে যোগদান করেছি। আমার নিকট এসংক্রান্তে কেহ কোনও অভিযোগ করে নাই। জানতে চাইলে সংশ্লিষ্ট সহকারী শিক্ষক মো. ফারুক হোসেন বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। আমাকে ফাঁসানোর জন্য এসব করা হচ্ছে।
এবিষয়ে তালা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. অহিদুল ইসলাম বলেন, এই ধরনের ঘটনা শোনার পর আমি খোজ নিয়ে সহকারী শিক্ষক মো. ফারুক হোসেন’র বিরুদ্ধে ৩টি অর্থ বছরের আর্থিক দূর্ণীতির সত্যতা পেয়েছি। এছাড়া তাঁর পরকীয়া প্রেমজ সম্পর্ক সহ বেশ কিছু অনৈতিক সম্পর্ক ও কর্মকান্ডের অভিযোগ পেয়েছি। এসব ঘটনায় ফারুক হোসেন’র বিরুদ্ধে অফিসিয়ালী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলেÑ শিক্ষা অফিসার জানিয়েছেন।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …