Breaking News
Home / আইন ও আদালত / স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা

স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা

আল আমিন, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় মিজান খন্দকার (২৫) নামের এক যুবক পোকা মারার ঔষধ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের চরলক্ষ্মী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মিজান ওই গ্রামের ওয়াহেদ খন্দকারের ছেলে।
স্থানীয়রা জানায়, প্রায় দুই বছর আগে মিজান ভালোবেসে বাউফল উপজেলার কালাইয়া ইউনিয়নের নগরহাট গ্রামের কালাম হোসেনের মেয়ে শ্যামলী বেগমকে বিয়ে করে। এ বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তাদের মধ্যে কোলহ শুরু হয়। প্রায়ই তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে ঝগড়াঝাটি হতো। মঙ্গলবার সকালে টি-শার্ট ধুয়ে না দেওয়ায় মিজান তার স্ত্রীকে মারধর করে। পরে স্ত্রীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি করে মিজান ঘর থেকে বের হয়ে চালের পোকা মারার ঔষধ (গ্যাস ট্যাবলেট) খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিক গুরুত্বর অসুস্থ অবস্থায় তাকে স্পীডবোটে গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাক্তার ছালাউদ্দিন বলেন, আমাদের এখানে নিয়ে আসার আগেই সে মারা যায়।
ওই ইউনিয়নের চরলক্ষ্মী ৩ নম্বর ওয়ার্ড ইউপি সদস্য সালাম প্যাদা বলেন, বউর সঙ্গে ঝগড়াঝাটি হওয়ায় অভিমান করে চালের পোকা মারার গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে মিজান আত্মহত্যা করে। এরআগেও দুই-তিন বার সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। মিজান কৃষিতে ডিপ্লোমা করেছিল।
এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ওসি মিলন কৃষ্ণ মিত্র বলেন, মিজান নামের এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। তার লাশ গলাচিপা থানা পুলিশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠিয়েছে।

Check Also

রাঙ্গাবালীতে করোনা ভাইরাস-জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ

মাহামুদ হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় করোনা-ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করা হয় …